বৃষ্টি মাথায় নিয়ে ঢাকা ফিরছেন মানুষ


নাড়ির টানে বাড়ি যাওয়া মানুষজন এবার জীবিকার তাগিদে ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছেন। ঈদের ছুটিতে স্বজনদের সঙ্গে সময় কাটানোর সুখস্মৃতি নিয়ে সবাই ফিরে আসছেন কর্মস্থলে।

বাস, ট্রেন, লঞ্চে রবিবারের বাড়তি চাপ এড়াতে অনেকেই ফিরছেন আগেভাগেই। গতকাল সকাল থেকে কমলাপুর রেলস্টেশন ও রাজধানীর বাস টার্মিনালগুলোতে কর্মস্থলে ফেরা মানুষের চাপ দেখা গেছে। বাসযাত্রা স্বস্তির হলেও উত্তরবঙ্গের সব কটি ট্রেন দেরিতে ছেড়ে আসায় দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে যাত্রীদের।

ভুক্তভোগী যাত্রীরা জানিয়েছেন, প্রতিটি ট্রেন দু-তিন ঘণ্টা দেরি করে এসেছে। ঈদের পরও ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় যথারীতি বহাল আছে। বিলম্বের সময়সীমা কিছুটা কমলেও কিছুতেই ভেঙে পড়া শিডিউল পুরোপুরি ঠিক করতে পারছে না রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে যাত্রীদের ভোগান্তি ও ক্ষোভের অন্ত নেই।

বাড়তি ঝক্কি এড়াতে ঈদ ছুটি শেষ হতেই যারা ঢাকায় ফেরার যাত্রা করেন, তারাও ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় থেকে রেহাই পাননি। এ বিশৃঙ্খলা অব্যাহত থাকলে শনিবার ও রবিবার ট্রেনযাত্রীদের ভোগান্তি চরমে পৌঁছবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ঈদের সাধারণ ছুটির সঙ্গে বৃহস্পতিবার বাড়তি এক দিনের ছুটি যোগ করে পরিবারের সঙ্গে বেশি সময় কাটানোর সুযোগ নিয়েছেন অনেকেই, যে কারণে ছুটি শেষ হলেও ঢাকায় ফেরার মূল চাপ এখনো শুরু হয়নি। কিন্তু ভোগান্তির মাত্রা কমেনি মোটেও। ঈদযাত্রায় শিডিউল বিপর্যয়ের কারণে ট্রেন ছয়-সাত ঘণ্টা পরও ছেড়ে গেছে।

ঈদের আগের সেই শিডিউল বিপর্যয় ঈদের পরও থাকবেÑ এটা মানতে পারছেন না যাত্রীরা। তবে পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন শেষে নির্বিঘ্নে ঢাকা ফিরেছেন বাসযাত্রীরা। বৃহস্পতিবার সরকারি ছুটির পর দুই দিন সাপ্তাহিক ছুটি শেষে রবিবার অফিস-আদালত খোলা থাকায় সড়ক ও নৌপথে যাত্রীদের বাড়তি চাপ দেখা যায়নি।

রাজধানীর বাস টার্মিনালগুলোতে দূরপাল্লার বাস আসছে যাত্রী নিয়ে। তবে ঢাকা থেকে অনেকটাই খালি যাচ্ছে বাসগুলো। শুধু চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের বাসগুলো যাত্রীতে পরিপূর্ণ। বাসে করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে এসেছেন বেসরকারি চাকরিজীবী ইকবাল আহম্মেদ।

তিনি জানান, শনিবার থেকেই অফিস খোলা। এ কারণে রাতেই বাসে উঠেছেন। সকাল সকাল ঢাকায় এসে পৌঁছেছেন। আসার পথে তেমন কোনো যানজটে পড়তে হয়নি বলেও তিনি জানান।

নাটোর থেকে ফিরেছেন হাবিবুর রহমান হবি।তিনি বলেন, ‘যাওয়ার সময় বঙ্গবন্ধু সেতুর উভয় পাশে ভয়াবহ যানজটে পড়ে ১৬ ঘণ্টা আটকে থাকতে হয়েছে। ফেরার সময় যানজটের কোনো ধকল পোহাতে হয়নি। ঠিক সময়েই ফিরে এসেছি। তবে পরিবারের সঙ্গে কাটানো ঈদের সময়গুলো ছিল অনেক আনন্দের।

তাদের রেখে চলে আসায় মনটা খারাপ।’ অন্যদিকে লঞ্চেও গতকাল ফিরতি যাত্রীদের কিছুটা ভিড় ছিল। তবে সেই ভিড় উপচেপড়া নয় বলে জানান বিআইডব্লিউটিএর একজন কর্মকর্তা। তিনি বলেন, আগেভাগেই অনেক যাত্রী ঢাকায় ফিরে আসায় অন্যান্যবারের মতো উপচেপড়া ভিড় হওয়ার আশঙ্কা নেই।


universal education
শর্টলিংকঃ