স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট১০ লাইট


ইউএনভি ডেস্ল:

দক্ষিণ কোরিয়ার জায়ান্ট স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি নোট সিরিজের ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসগুলোর দাম তুলনামূলকভাবে বেশি। তাই অনেক গ্রাহকের ইচ্ছা থাকলেও নোট সিরিজের ডিভাইস কিনতে পারেন না।

স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট১০ লাইট

অধিক দামের কারণে যেসব গ্রাহক গ্যালাক্সি নোট সিরিজের ডিভাইস কিনতে পারেন না, তাদের জন্য স্যামসাং উন্মোচন করেছে গ্যালাক্সি নোট১০ লাইট। চলুন দেখি ডিভাইসটিতে কী রয়েছে এবং ডিভাইসটি আপনার জন্য কতটা উপযোগী।

ডিজাইন

ডিভাইসটির ডিজাইনে গ্যালাক্সি১০ পল্গাসের সঙ্গে তেমন মিল নেই। তবে নোট ১০-এর প্রায় সব ফিচারই রয়েছে এতে। ১৯৯ গ্রাম ওজনের ফোনটি ভারী মনে হলেও প্রতিদিন ব্যবহারে তেমন অসুবিধা হবে না। ফোনটির পেছনে রয়েছে চারকোণ আকৃতির বাম্প, যেখানে রয়েছে তিনটি ক্যামেরা ও ফ্ল্যাশ। ফোনের বডি ও ডিসপ্লের মাঝের অংশটি মেটালের। ফোনটির বাঁ পাশে রয়েছে কার্ড স্লট। স্লটে দুটি সিমকার্ড কিংবা একটি সিম ও একটি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করা যাবে। ফোনের নিচের অংশে রয়েছে এসপেন, চার্জিং পোর্ট এবং ৩.৫ এমএম হেডফোন জ্যাক। গ্রিপ পাওয়া যাবে তাই হাত থেকে স্লিপ করে পড়ে যাওয়ার ভয় কম। রয়েছে ইনফিনিট ডিসপ্লে এবং ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সুবিধা।

ডিসপ্লে

ফোনটিতে রয়েছে ৬.৭ ইঞ্চি সুপার অ্যামলয়েড ইনফিনিট ডিসপ্লে, যা ১০৮০ পিক্সেল বাই ২৪০০ পিক্সেল রেজুলেশনের। যা বেশ ভালো মানের ডিসপ্লে বলা যায়। ডিভাইসটির পিক্সেল ডেনসিটি ৩৯৪ পিপিআই, স্ট্ক্রিন টু বডি রেশিও ৮৬%। দিন ও রাতে ভিডিও দেখতে তেমন কোনো অসুবিধা হবে না ডিভাইসটিতে। টাচ বেশ ভালোভাবেই কাজ করে।

পারফরম্যান্স

ফোনটিতে থাকছে ১০ ন্যানোমিটারের এক্সিনোজ ৯৮১০ প্রসেসর। যার সঙ্গে ব্যবহার করা হয়েছে মালি জি৭২ এমপি১৮ জিপিইউ। ৬ ও ৮ গিগাবাইট র‌্যামের সংস্করণে ডিভাইসটি পাওয়া যাবে। রয়েছে ১২৮ গিগাবাইট ফ্ল্যাশ স্টোরেজ ক্যাপাসিটি। অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ১০। ফোনটিতে একসঙ্গে অনেক অ্যাপ ব্যবহার করলেও খুব বেশি স্লো হয় না। এর গেমিং পারফরম্যান্স ভালো। হাইডেফিনেশন গেম খেলার সময় এতে কিছুটা ফ্রেম ড্রপও খুব একটা চোখে পড়বে না। অনেকক্ষণ গেম খেললে কিছুটা গরম হয় ডিভাইসটি। তবে দ্রুত ঠাণ্ডা হয়, যা একটি ভালো দিক বলা যায়।

ক্যামেরা

ফোনটির পেছনে রয়েছে তিনটি ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরা তিনটির অ্যাপচার যথাক্রমে এফ/১.৭, এফ/২.৪, এফ২.২। সেলফি ও ভিডিও চ্যাটের জন্য সামনে রয়েছে ৩২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরা স্যামসাংয়ের চিনচেনা সব ফিচারে থাকছে। পর্যাপ্ত আলোতে এই ফোনের ক্যামেরায় ভালো ছবি তোলা যায়। ছবির ফোকাস, ডিটেইলস এবং ডায়নামিক রেঞ্জ ছিল ঠিকঠাক। অল্প আলোতে এর রিয়ার ক্যামেরা দিয়েও ভালো ছবি তোলা যায়।। ফ্রন্ট ক্যামেরায় এইচডিআর মোড থাকায় এতেও বেশ ভালো ছবি পাওয়া গেছে। বিউটিফিকেশনের পাশাপাশি ফ্রন্ট ক্যামেরায় থাকছে পোর্ট্রেট এবং প্যানারোমা মোড।

ব্যাটারি

হ্যান্ডসেটটিতে থাকছে ৪৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। সাধারণ ব্যবহারে একবার চার্জ দিলে অনায়াসেই ফোনটি এক দিন ব্যবহার করা যাবে। ফুল চার্জ দিতে আড়াই ঘণ্টার একটু বেশি সময়ের প্রয়োজন হবে।

দাম

দেশের বাজারে ডিভাইসটির মূল্য ৫৫ হাজার ৯৯৯ টাকা।

Print Friendly, PDF & Email

শর্টলিংকঃ