বেরোবির কেনা ‘মাইক্রোবাস’ নিয়ে বিতর্কে উপাচার্য

  • 6
    Shares

বেরোবি সংবাদদাতা:

বিতর্কের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে পারছেন না বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ। একের পর এক বিতর্কের জন্ম দিয়ে আলোচনা-সমালোচনায় আসছেন। এবার বেরোবি শিক্ষকদের জন্য কেনা মাইক্রোবাস ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে ব্যবহার করে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ডিএনসিসি নির্বাচনে বেরোবির শিক্ষকদের মাইক্রোবাসটি ব্যবহার করে উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহর নির্বাচন পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা জানিপপ।

এদিকে শিক্ষকদের ব্যবহারের জন্য কেনা মাইক্রোবাসটি উপাচার্য তার নির্বাচনী সংস্থার পর্যবেক্ষণ কাজে ব্যবহার করায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বিষয়টিকে উপাচার্যের ইচ্ছে শক্তির বহিঃপ্রকাশ হিসেবে দাবি করছেন।

নাম না প্রকাশের শর্তে সাবেক এক শিক্ষক নেতা বলেন, ‘অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান ভুলে গেছেন তিনি একটা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। তাকে জবাবদিহিতার সম্মুখীন হতে হয় না বলেই তিনি যখন যা ইচ্ছে করে যাচ্ছেন। উপাচার্য তার নিজস্ব প্রতিষ্ঠান জানিপপ নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে তার মাথা ব্যথা নাই।’

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আনা-নেওয়ার জন্য সম্প্রতি একটি সাদা রঙের মাইক্রোবাস (যার নম্বর রংপুর চ-৫১-০০২৭) কেনা হয়। মাইক্রোবাসটি গত বছরের ১৪ আগস্ট থেকে রংপুর থেকে ঢাকায় নিয়ে যান উপাচার্য।

এরপর থেকে মাইক্রোবাসটি তার প্রয়োজনে এবং নির্বাচন পর্যবেক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান জানিপপের বাহন হিসেবে ব্যবহার করে আসছেন। উপাচার্য তার নির্বাচনী কাজে মাইক্রোবাসটি ব্যবহারের সাথে সাথে জ্বালানি খরচটাও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নিচ্ছেন।

এদিকে মাইক্রোবাস ব্যবহারের বিষয়টি স্বীকার করেছেন ড. অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ্। তিনি জানান, গাড়ির সংকট থাকায় এবং বৃষ্টির কারণে তাকে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবাসটি ব্যবহার করতে হয়েছে। তবে জ্বালানি খরচের বিষয়ে তিনি কিছু বলেননি।

এ ব্যাপারে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) রংপুর মহানগর সভাপতি অধ্যক্ষ ফখরুল আনাম বেঞ্জু বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো একটা প্রতিষ্ঠানের গাড়ি নির্বাচনে ব্যবহার করা দুঃখজনক। উপাচার্য তার সংস্থার কাজে শিক্ষকদের পরিবহন সুবিধার জন্য কেনা মাইক্রোবাসে পর্যবেক্ষকের স্টিকার ব্যবহার করতে পারেন না। রংপুরের বাইরে গিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে বেরোবির মাইক্রোবাসের ব্যবহার উপাচার্যের চরম অনৈতিক কাজের উদাহরণ।’

জানা যায়< ড. অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) উপাচার্য হলেও তিনি মাসের বেশির ভাগ সময়ই ঢাকায় অবস্থান করেন। টেলিভিশন টক-শো আর তার নিজস্ব প্রতিষ্ঠান জানিপপ নিয়ে ব্যস্ত থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালনে চরম অবহেলার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সম্প্রতি তার ব্যাপারে নিয়োগ বাণিজ্য, দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।


  • 6
    Shares
শর্টলিংকঃ