মুক্তিযোদ্ধা হত্যার বিচার দাবিতে ঈশ্বরদীতে হরতাল পালিত

  • 16
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনা : 
পাবনার ঈশ্বরদীর বীরমুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিম হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে ঈশ্বরদী পৌর এলাকায় সর্বাত্মক আধাবেলা হরতাল শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধা জনতার ব্যানারে ডাকা হরতাল সকাল ৬টা থেকে শুরু হয়ে চলে দুপুর ১২টা পর্যন্ত।

হরতাল চলাকালে ঈশ্বরদী পৌর শহরের দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। সেইসাথে দূরপাল্লা ও অভ্যান্তরীন রুটে যানচলাচল বন্ধ ছিল। তবে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক ছিল। হরতালের সমর্থনে ঈশ্বরদী রেলগেটসহ বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেন হরতাল আহবানকারীরা।  গত ২৪ জুলাই বুধবার ঈশ্বরদীর মুক্তিযোদ্ধা-জনতার আয়োজনে পুরাতন মোটর স্ট্যান্ডের মাহবুব আহমেদ খান স্মৃতি মঞ্চে অনুষ্ঠিত সভায় এই হরতালের ডাক দেওয়া হয়।

এদিকে বহুল আলোচিত সেলিম হত্যা মামলার তদন্তভার অবশেষে পুলিশ বুরো অব ইনভেস্টিগেশনে (পিবিআই) হস্থান্তরের জন্য নির্দেশনা এসেছে ঈশ্বরদী থানায়। গত ছয় মাসেও আলোচিত এই হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত মূল পরিকল্পনাকারী ও হত্যাকারীদের গ্রেফতার করতে না পারায় পুলিশের ঢাকা হেডকোয়ার্টার্স থেকে পাবনা পুলিশ সুপারের কার্যালয় হয়ে গত রোববার ঈশ্বরদী থানায় এসে পৌঁছেছে নির্দেশনার চিঠি।

পাকশী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার জাহাঙ্গীর আলম জানান, সেলিম হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার ও আলোচিত এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচন করার দাবিতে ইতিমধ্যে রেলপথ অবরোধ, বিক্ষোভ, জাতীয় ও স্থানীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন, মানববন্ধন, পথসভা, জনসভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার ঈশ্বরদীতে অর্ধদিবস হরতাল পালনের ডাক দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য গত ৬ ফেব্রুয়ারি রাতে মুক্তিযোদ্ধা ও পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান সেলিমকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।


  • 16
    Shares
শর্টলিংকঃ