শিশুদের দিয়ে দেহব্যবসা, এসআইসহ আটক ২

  • 18
    Shares

ইউনিভি ডেস্ক নিউজ:

শিশুদের দিয়ে জোরপূর্বক দেহব্যবসা করানোর অভিযোগে পুলিশের একজন এসআইসহ দুই জনকে আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

র‍্যাবের হাতে আটক পুলিশের এসআই রোকন উদ্দিন ভূঁইয়া ও তার সহযোগী। ছবি- সংগৃহীত

শনিবার (২৬ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিলেট নগরীর দাড়িয়াপাড়া এলাকা থেকে রোকন উদ্দিন ভূঁইয়া (৪০) নামে পুলিশের এক এসআইসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে। অভিযানে র‍্যাব ১২ বছরের দুইজন নির্যাতিত শিশু ও বেশ কিছু ইয়াবা উদ্ধার করে র‍্যাব।

এসময় ওই বাসা থেকে ১২ ও ১৩ বছর বয়েসের দুই মেয়েকেও উদ্ধার করেছে র‌্যাব। আটক দুজন হচ্ছেন নগরের কোতোয়ালী মডেল থানার মুন্সিপাড়া এলাকার মৃত আব্দুল রশিদের ছেলে রোকন উদ্দিন ভূঁইয়া (৪০) ও তার স্ত্রী পরিচয়ে থাকা নেত্রকোনা জেলার কালিয়াজুড়ির আটগাঁওয়ের মৃত মফিজুল মিয়ার মেয়ে রিমা বেগম (৩৫)। আটক রোকন আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ানের এসআই পদে কর্মরত। আটককৃত রিমা এবং রোকন স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে ওই বাসায় থাকতেন।

র‌্যাব-৯ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মো. মনিরুজ্জামান জানান, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই বাসার নীচ তলার একটি ফ্ল্যাটে অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে রিমা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। ওই বাসার একটি কক্ষ থেকে দুজন শিশু এবং ৬০ পিছ ইয়াবাও উদ্ধার করা হয়েছে’।

অভিযানে উদ্ধাকৃত নির্যাতিত দুই শিশু হলো- কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলাধীন মাঝিকোনা গ্রামের মো. জুয়েল মিয়ার মেয়ে তামান্না আক্তার তমা (১২) ও সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলাধীন ফুলবাড়ী গ্রামের আশুক আহম্মেদের মেয়ে দিপা (১৩)। আটক দুজনকে সিলেট কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন র‍্যাব-৯ এর সিনিয়র সহকারি পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান।

তিনি আরও জানান, ‘কাজের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন স্থান থেকে কিশোরী ও শিশুদের এনে জোরপূর্বক আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করাতেন বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে আটককৃতরা’।

সূত্র: ইত্তেফাক


  • 18
    Shares
শর্টলিংকঃ