ঠাণ্ডাজনিত রোগের প্রকোপ : আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধরা


গত ২৪ ঘন্টায় শিশুসহ শতাধিক রোগী হাসপাতালে ভর্তি

গোদাগাড়ী প্রতিনিধিঃ
রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে শৈত্যপ্রবাহ আর কনকনে শীতে ঠাণ্ডাজনিত রোগে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এতে করে গত ২৪ ঘন্টায় শিশুসহ শতাধিক রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

এদিকে গত কয়েকদিনে গোদাগাড়ী উপজেলাজুড়ে শৈত্যপ্রবাহ ও শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি পাওয়ায় দেখা দিয়েছে নানা ধরনের রোগ বালাই। বেড়েছে নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়াসহ শীতজনিত বিভিন্ন রোগের প্রকোপ। যার শিকার হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধরা। উপজেলায় শীতের তীব্রতায় বৃদ্ধ ও শিশুরা কষ্ট পাচ্ছে সবচেয়ে বেশি। ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া ছাড়াও সর্দি-কাশি ও ঠাণ্ডাজনিত চর্মরোগসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছেন এ অঞ্চলের মানুষরা। এছাড়া গৃহপালিত পশু নিয়ে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরাও। গোদাগাড়ী ৩১শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে গত দুইদিনে দেড় শতাধিক রোগী বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা নিয়েছে বলে জানা যায়। হাসপাতালে প্রায় অর্ধশতাধিক রোগী বিশেষ করে শিশু, বৃদ্ধরা ডায়রিয়া সর্দি, কাশি, জ্বর, নিউমোনিয়া আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন আছেন।

এক শিশু ডাইরিয়া রুগীর মা রাশিদা খাতুন বলেন, ‘আমার সন্তানের ঠান্ডা লেগে ডাইরিয়া হয়েছে। ডাইরিয়ায় আক্রান্ত সন্তানকে নিয়ে হাসপাতালে এসেছি। অসুস্থ সন্তানকে নিয়ে বেশ ভোগান্তিতে পড়েছি।

স্থানীয় হাসপাতালের নার্স শরিফা খাতুন জানান, ডাইরিয়ার রোগী বেশী হওয়ায় অতিরিক্ত চাপ হচ্ছে সামাল দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে আমাদের।


গোদাগাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ ফরিদ হোসেন জানানা, শীতের কারণে স্বাভাবিক সময়েরে চেয়ে বর্তমানে বেড়েছে শিশুসহ ডাইরিয়া রোগীর সংখ্যা। নিউমোনিয়া, সর্দি, কাশিতে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিনিই ভর্তি হচ্ছে নতুন নতুন রোগী। শিশুদের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার পাশাপাশি শীত যাতে না লাগে সেদিকে নজর রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন। গোদাগাড়ী ৩১ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ওয়াহিদা খাতুন বলেন, ‘এই শীতে হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। তবে, তাদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে যথেষ্ট প্রস্তুতি ও ঔষুধ রয়েছে।’

আরও পড়তে পারেন গোদাগাড়ীতে ফুপুকে পিটিয়ে হত্যা, হত্যাকারী আটক

Print Friendly, PDF & Email

শর্টলিংকঃ