মায়ের দগ্ধ লাশ পেতে ডিএনএ নমুনা দিল শিশুটি

  • 86
    Shares

ইউএনভি ডেস্ক :

মামার কোলে চড়ে মায়ের খোঁজে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এসেছে ছোট্ট সানিন। পাঁচ বছরের শিশুটি ঠিক বুঝে উঠতে পারছে না, কী হয়েছে! সবাই বলছে, তার মা আর নেই। কিন্তু সে জানে—মা তো একটু বাড়ির নিচে গিয়েছিল। তারপর কোথায় গেল? সানিনের পাঁচ মাস বয়সী ছোট্ট বোনটাও সারাক্ষণ কাঁদছে। অবুঝ শিশুটিও হয়তো তার মাকে খুঁজছে।

ডিএনএ নমুনা দিতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এসেছে শিশু সানিন।

রাজধানীর চকবাজারে বুধবার রাতে আগুনের ঘটনায় সানিনের মা বিবি হালিমা বেগম শিলা (২৫) নিখোঁজ রয়েছেন। শুক্রবার মামার সঙ্গে সানিন এসেছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। শিলার লাশ খুঁজে পেতে মেয়ে সানিনের ডিএনএ নমুনা নিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

চকবাজারে আগুনের ঘটনায় ডিএনএ নমুনা দিতে হাসপাতালে আসা স্বজনদের কাছ থেকে জানা যাচ্ছে টুকরো টুকরো সব কষ্টের গল্প। শিলার গল্প জানা গেল তাঁর স্বজনদের কাছ থেকে।

চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডের স্থান থেকে ২০০ গজ দূরেই পরিবার নিয়ে থাকতেন শিলা। শিলার স্বামী মোহাম্মদ সুমন। তিনি চকবাজারেই ব্যাগের ব্যবসা করেন। বুধবার রাতের আগুন তাঁদের বাসা পর্যন্ত যায়নি। তবে ‘ভাগ্য’ শিলাকেই আগুনের কাছে নিয়ে গেছে।

শিলার বোনের স্বামী মো. বেলাল হোসেন জানালেন, ঘটনার দিন রাতে সানিন একটু অসুস্থ ছিল। তার বাবা সুমন ছিলেন কর্মস্থলে। তাই শিলা তাঁর এক বোন ও দুই শিশুসন্তানকে বাসায় রেখে নিচে গিয়েছিলেন ওষুধ কিনতে। তিনি সেই যে গেছেন, আর ফেরেননি।

পরিবারের সদস্যদের ধারণা, নিচে ওষুধ কিনতে গিয়ে শিলা হয়তো ভয়াবহ আগুনের কবলে পড়েন। হয়তো তিনি আর নেই। শনাক্ত না হওয়া লাশের ভেতরে শিলা থাকতে পারেন—এমনটা ভেবে ডিএনএ নমুনা দিতে এসেছেন তাঁরা। বেলাল হোসেন জানান, শিলারা পাঁচ বোন ও তিন ভাই। নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে তাঁদের গ্রামের বাড়ি।


  • 86
    Shares
শর্টলিংকঃ