রাজশাহীতে মাদ্রাসা-এতিমখানার নামে চাঁদা, ১১ প্রতারক গ্রেপ্তার

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিবেদক :

মানুষের সরল অনুভুতি ও ধর্মীয় বিশ্বাসকে পুঁজি করে জমজমাট ব্যবসা করছে প্রতারক চক্র। এই প্রতারণ চক্র ছড়িয়ে আছে সারা বাংলাদেশে। এ রকম প্রতারক চক্রের সন্ধান মিলেছে রাজশাহী মহানগরীতে।

রাজশাহী মহানগরীতে মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে ভূয়া রশিদ তৈরি করে চাঁদা আদায়ের অপরাধে ১১ জন প্রতারকে গ্রেপ্তার করেছে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। শুক্রবার রাতে নগরীর ঘোষের মাহাল এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে।

শনিবার মহারগর পুলিশের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কতিপয় ব্যক্তি ধর্মপ্রাণ মুসলমানের অনুভুতি ও ধর্মীয় বিশ্বাসকে পুঁজি করে রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানার হযরত আয়েশা সিদ্দিকা (রাঃ) বালিকা ক্বারিয়ানা হাফিজিয়া আবাসিক মাদ্রাসা লিল্লাহ বোডিং ও এতিম খানা এবং অন্যান্য মাদ্রাসার এতিম খানার নামে ভূয়া রশিদ তৈরি করে প্রতারণার মাধ্যমে চাঁদা আদায় করছে।

প্রতারণা করে চাঁদা আদায়ের বিষয়টি রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের নজরে আসে। পরবর্তীতে উক্ত তথ্যের সূত্র ধরে গোয়েন্দা পুলিশের একটি বিশেষ টিম শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে রাজপাড়া থানার ঘোষের মাহাল এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে ভূয়া রশিদ তৈরি করে চাঁদা আদায়ের অপরাধে ১১ প্রতারক সদস্যকে আটক করে। এসময় আটককৃতদের হেফাজত হতে ভূয়া রশিদ ও ভূয়া রশিদের মাধ্যমে উত্তোলনকৃত নগদ ৩৫ হাজার ২৫০ টাকা উদ্ধার করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে ভূয়া রশিদ তৈরি করে চাঁদা আদায়ের কথা স্বীকার করে। তাদের অধিকাংশের বাড়ী বৃহত্তর রংপুর বিভাগের বিভিন্ন জেলায়। দীর্ঘদিন যাবৎ তারা একত্রিত হয়ে রাজশাহী মহানগর এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে রমজান ও ঈদকে উদ্দেশ্যে করে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের নিকট হতে বিভিন্ন মাদ্রাসা ও এতিম খানার নামে ভূয়া রশিদ এর মাধ্যমে চাঁদা তুলছিল। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
শর্টলিংকঃ