তৌসিফ–জারার ভালোবাসাবাসি

  • 5
    Shares

বিনোদন ডেস্ক :

২০১৮ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি বিয়ের পিঁড়িতে বসেন তাঁরা। জান্নাতুল ফেরদৌস, তাঁকে সবাই জারা নামেই জানেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এই ফেব্রুয়ারিতে বিয়ের এক বছর পূর্ণ করলেন এই দম্পতি। প্রথম বিবাহবার্ষিকী পালন করতে এই দম্পতি কদিন আগে গিয়েছেন ভুটান। ঘুরছেন নানা প্রান্তে। এই দম্পতির এক বছরের ভালোবাসাবাসি নিয়েই এ প্রতিবেদন।

ভুটানে তৌসিফ আর তাঁর স্ত্রী
ভুটানে তৌসিফ আর তাঁর স্ত্রী

কিছুদিন আগের কথা। সকাল থেকে চেষ্টার পর বিকেলে ফেসবুকের মেসেঞ্জারে পাওয়া গেল তৌসিফ মাহবুবকে। ফোন ধরেই দুঃখ প্রকাশ করলেন। ভুটানের এক শহর থেকে আরেক শহরে গেলেন বলে সময় লাগল।

জানতে চাই, কেমন গেল বিয়ের এক বছর? দুজনের হাসির শব্দ শোনা গেল। তারপর যৌথ কণ্ঠে শোনা গেল একটা শব্দ, ‘দারুণ’, যেটির তরজমাও করে দিলেন দুজন, ‘অসাধারণ কেটেছে আমাদের এক বছর।’

তৌসিফ মাহবুব বললেন, ‘আমরা প্রেম করেছি সাড়ে তিন বছর। তারপর বিয়ে করেছি। বিয়ে করে বুঝেছি, আগে আর পরের ভালোবাসার বিস্তর পার্থক্য রয়েছে।’ কী রকম সেই পার্থক্য? খোলাসা করেন তৌসিফ।

‘বিয়ের আগের ভালোবাসায় অতটা দায়িত্ববোধ থাকে না। কিন্তু বিয়ের পরের ভালোবাসাতে দায়িত্বশীল হতে হয়। ভালোবাসার ব্যাপারটা আমি এই এক বছর শিখছি। তবে স্ত্রী যদি সহযোগিতাপরায়ণ হন, তাহলে খুব বেশি চিন্তা নেই।’

এই ফাঁকে জারার (জান্নাতুল ফেরদৌসের ডাকনাম) প্রশংসা করলেন তিনি। তৌসিফের কোন নাটকে ভিউ কম হচ্ছে, প্রমোশনের জন্য কী করা উচিত, কোন নাটকটা করা দরকার বা দরকার নেই, কিংবা ক্যারিয়ারের জন্য কী করা উচিত—সব বিষয়ে পরামর্শ দেন স্ত্রী।

এ কারণেই কিনা কে জানে, ‘ওয়াইফ ইজ অলওয়েজ রাইট’ বাক্যটা জুড়ে দিলেন স্ত্রীর প্রশংসার বেলায়। এই বাক্যের একটা ব্যাখ্যাও দিলেন তৌসিফ, ‘আমার মা বা বোন কারও না কারও তো স্ত্রী। খেয়াল করে দেখবেন, ছেলেদের অনেকেই অনেক সময় সিদ্ধান্ত নিতে ভুল করে, স্ত্রীরা সেটা ধরিয়ে দেন।

অনেক ভুল আমাদের চোখে পড়ে না, কিন্তু তাঁদের চোখে পড়ে, যেটা বরাবরই আমাদের জন্য উপকারী। এই কারণে আমার মনে হয়, ওয়াইফ ইজ অলওয়েজ রাইট। কারণ, কোনো স্ত্রী কখনো স্বামীর খারাপ চাইবেন না। আমি মনে করি, যেকোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে স্ত্রীর কাছ থেকে পরামর্শ নেওয়া উচিত, যেটা আমি নিই।’


জারার মুখেও তৌসিফের প্রশংসা শোনা গেল। তিনি বললেন, ‘এই একটা বছর জীবনের সেরা সময়। নিজের বাড়ি ছেড়ে আসতে কষ্ট হয়েছে বটে, কিন্তু নতুন একটা পরিবারও পেয়েছি। এটাও একটা জীবনের বড় প্রাপ্তি।’ তবে সম্পর্কের বেলায় ছোট্ট একটা বিষয় মেনে চলেন তিনি। তাঁর ভাষায়, ‘ভালোবাসার সম্পর্কে সরি বলার অভ্যাসটা করতে হবে। নিজের জেদ বা রাগ নিয়ে পড়ে থাকলে হবে না।’

কথা শেষ করার আগে তৌসিফ জানালেন, দুজন মিলেই তো একটা সম্পর্ক। একটা যৌথ জীবন। তাই এই সম্পর্কের যত্ন নেওয়া জরুরি।


  • 5
    Shares
শর্টলিংকঃ