রংপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৪ মামলার আসামি নিহত


ইউএনভি ডেস্ক:

রংপুরের গঙ্গাচড়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শহিদুল ইসলাম সুমন নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, শহিদুল চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, অপহরণ ও ধর্ষণসহ ১৪টি মামলার আসামি।

মঙ্গলবার (৭ মে) ভোরে গঙ্গাচড়া উপজেলার মহিপুর ব্রিজের উত্তর পাশে এ ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়। নিহত শহিদুল লালমনিরহাটের কালিগঞ্জ উপজেলার রুদ্রেশ্বর এলাকার মাহেসর আলীর ছেলে।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত সুপার (সার্কেল এ) সাইফুর রহমান জানান, ভোরে পীরগাছা ও গঙ্গাচড়া থানা পুলিশ যৌথভাবে শহিদুলকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে মহিপুর ব্রিজ সংলগ্ন চর ইছলী এলাকায় অভিযানে যায়।

এসময় সেখানে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা শহিদুলের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ গুলিবিদ্ধ হন শহিদুল।

গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা শহিদুলকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি মোটরসাইকেল, ২২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, একটি অগ্নেয়াস্ত্র, তিনটি গুলির খোসা ও একটি ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

শর্টলিংকঃ