শিল্পকলা একাডেমী সম্মাননা পাচ্ছেন নাচোলের শিল্পী গাইসু


অলিউল হক ডলার, নাচোল :

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিল্প-সংস্কৃতিতে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে এবার পাঁচ গুণীশিল্পী পাচ্ছেন জেলা শিল্পকলা একাডেমী সম্মাননা। পাঁচ বিভাগে নির্বাচিত এই গুণী শিল্পীদের হাতে আজ সোমবার সকালে সম্মাননা স্মারক হিসাবে শিল্পকলা একাডেমীর পদক তুলে দেয়া হবে। 

মাইক্রোফোন হাতে গিয়াসউদ্দিন গাইসু

জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সম্মাননা-২০১৮ প্রাপ্ত শিল্পীরা হলেন, নাট্যকলায় গিয়াস উদ্দিন (গাইসু), কণ্ঠসঙ্গীতে মেহবুব রাজা, লোক সঙ্গীতে (গম্ভীরায়) সাইদুর রহমান, আবৃত্তিতে রাসিদা খাতুন ও যন্ত্রসঙ্গীতে (তবলায়) রণজিত কুমার নন্দী।

স্থানীয়রা জানান, নাচোলের গিয়াস উদ্দিন গাইসু সঙ্গীত জগতের অন্যতম একটি নাম। তার জন্ম ১৯৫৪ সালের ২মার্চ। এই ৬৫বছর বয়সে তিনি সঙ্গীতটাকে হৃদয়ে লালন করেন। নাচোল উপজেলার বিভিন্ন জাতীয় দিবসে স্বরচিত বিষয়ভিত্তিক গানের পাশাপাশি যাত্রাপালার বিবেকের গান, হারানোর দিনের গান মঞ্চে পরিবেশন করে থাকেন। তার জন্ম ভারতে হলে বাংলাদেশে ১৯৬২ সালের ফেব্রুয়ারী মাসের ২৪ তারিখ তিনি নাচোল উপজেলার মাস্টার পাড়ায় বাসা বাধেন এবং নাচোল ডিগ্রী কলেজে তিনি ১৯৭২সালে ৪র্থ শ্রেনী কর্মচারী হিসাবে চাকুরীতে যোগদান করেন।

শিল্পী গিয়াস উদ্দিন জানান, তিনি বাংলাদেশ সরকার প্রদত্ত শিল্পী কল্যাণ ভাতা প্রতি বছর পেয়ে থাকেন।বর্তমানের তিনি নাচোলের সাংবাদিক অলিউল হক ডলারের পরিচালিত গীতাঞ্জলি সাংস্কৃতিক একাডেমীতে নিয়মিত সঙ্গীত চর্চা করেন।

সামাজিক ব্যাধি দূরীকরণে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে তিনি অনেক নাটক লিখেন ও পরিচালনা করেন। নাটকগুলো হলো- ‘ব্যাভিচার’,‘সাগরের বুকে’,‘নিয়তির খেলা’,‘জলবায়ু’, ‘বেলা শেষে’,‘যৌতুকের দায়ে’,‘ফুল ঝরে যায়’,‘অশ্রু সরবে’, ‘জন্মভুমিতে কত জ্বালা’,‘কী বা পেলাম’,‘এখনো দেরি’,‘অধিকার’। তিনি সর্বমোট ১২টি নাটক রচনা ও পরিচালানা করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

শর্টলিংকঃ