রংপুরে তিন পরীক্ষার্থীকে কেন্দ্র সচিবের লাঠিপেটা

  • 9
    Shares

ইউএনভি ডেস্ক:

রংপুরের শ্যামপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ পরীক্ষা কেন্দ্রে এইচএসসি’র তিন পরীক্ষার্থীকে লাঠিপেটা করে আহত করেছেন কেন্দ্র সচিব। এ ঘটনায় কেন্দ্র সচিবের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে আহত পরীক্ষার্থীরা।সোমবার (৮ এপ্রিল) ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা চলাকালীন এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা জানান, রংপুর সদর উপজেলার শ্যামপুর ডিগ্রি কলেজের তিন এইচএসসি পরীক্ষার্থী মনিরুজ্জামান (রোল নম্বর ২৬৯৯৯৩), সাগর চন্দ্র সরকার (রোল নম্বর ২৬৯৯৭৯) এবং মেহেদী হাসান (রোল নম্বর ২৬৯৯৯৯) শ্যামপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে চলমান এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন।

সোমবার ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা চলাকালে কেন্দ্রের সচিব ও ওই প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম লাঠি হাতে কেন্দ্রের বিভিন্ন কক্ষ পরিদর্শন করছিলেন। এ সময় কয়েকজন পরীক্ষার্থী লাঠি হাতে ওই শিক্ষককে দেখে হাসাহাসি করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কেন্দ্র সচিব শহিদুল ইসলাম ওই তিন পরীক্ষার্থীকে লাঠি দিয়ে বেদম মারধর করেন।

এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা শেষে বেলা আড়াইটার দিকে কেন্দ্র সচিব শহিদুল ইসলামের শাস্তি দাবি করে বিক্ষোভ করে। পরে আহত শিক্ষার্থীরা লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দেয়।

এ ব্যাপারে শ্যামপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব শহিদুল ইসলামের সাথে তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি লাঠি দিয়ে তিন শিক্ষার্থীকে মারধর করার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ‘আমি তাদের শাসন করেছি।’

রংপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইশরাত সাবিহা সুমি লিখিত অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, ‘এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটি গঠন করে অভিযুক্ত কেন্দ্র সচিবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


  • 9
    Shares
শর্টলিংকঃ