জুনে রাজশাহীতে ২৬ নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার

  • 17
    Shares

 নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজশাহীতে গত জুন মাসে ২৬ জন নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে ১২টি নারী ও ১৪টি শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। বেসরকারি উন্নয়ন ও মানবাধিকার সংস্থা ‘এ্যাসোসিয়েশন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি’ এর ‘রিসার্চ, ডকুমেন্টেশন এন্ড পাবলিকেশন ইউনিট’ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জুন মাসে নারী ও শিশু নির্যাতনের আলোচিত ঘটনাগুলোর মধ্যে গত ১২ জুন ২০১৯ রাজশাহীর মোহনপুরে ছাত্রীকে ধর্ষণ ও এক ছাত্রী অপহরণের শিকার, ২৩ জুন মোহনপুরে ধর্ষণের পর গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা, ২৩ জুন মোহনপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা, ১৯ জুন তানোরে গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা, ২৯ জুন বাগমারায় পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষকের তিন মাসের কারাদণ্ড, ২৯ জুন মহানগরীতে ছাত্রাবাস থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর অর্থগলিত মরদেহ উদ্ধার, ১৩ জুন বাগমারায় ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, ১৫ জুন বাগমারায় জাম দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা, ১৬ জুন মোহনপুরে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ, গত ৯ জুন ২০১৯ বাগমারায় ১ শিশু ও এক নারী নির্যাতনের শিকার ছিল অন্যতম।

জেলায় জুন মাসে ১২ টি নারী নির্যাতনের মধ্যে মহানগরীর থানাগুলোতে সংঘটিত হয়েছে ১টি এবং মহানগরীর বাইরের থানাসমূহে সংঘটিত হয়েছে ১১টি নির্যাতনের ঘটনা। এরমধ্যে বাঘায় ৩টি, মোহনপুরে ৪টি, পুঠিয়ায় ১টি, গোদাগাড়ীতে ১টি, তানোরে ১টি এবং বাগমারায় ১ নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। এসব ঘটনার মধ্যে হত্যা ৩টি, হত্যার চেষ্টা ২টি, ধর্ষণ ১টি, অপহরণ ১টি, আত্মহত্যা ১টি, আত্মহত্যার চেষ্টার ঘটনা ঘটে ১টি এবং ৪টি যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটে।

জেলায় গত মাসে শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে ১৪টি। এর মধ্যে মহানগরীর থানাগুলোতে সংগঠিত হয়েছে ২টি এবং মহানগরীর বাইরের থানাগুলোতে সংঘটিত হয়েছে ১২টি। এর মধ্যে বাগমারায় ০৫টি, বাঘায় ১টি, মোহনপুরে ৩টি, গোদাগাড়ীতে ১টি, দুর্গাপুরে ১টি এবং তানোরে ১ শিশু নির্যাতনের খবর পাওয়া গেছে। এসব ঘটনার মধ্যে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ১টি, ধর্ষণের ঘটনা ১টি, ধর্ষণের চেষ্টা ৪টি, অপহরণ ১টি, আত্মহত্যা ১টি, আত্মহত্যার চেষ্টা ১ এবং যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটে ৫টি।


  • 17
    Shares
শর্টলিংকঃ