নওগাঁয় চুরি যাওয়া শিশু ১১ দিন পর উদ্ধার

  • 13
    Shares

নওগাঁ সদর হাসপাতাল থেকে চুরি যাওয়া শিশু মুসাকে ১১ দিন পর ঠাকুরগাঁও থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় এক নারীকে আটক করা হয়েছে।

সোমবার রাতে নওগাঁ সদর থানার তদন্ত কর্মকর্তা ফায়সাল বিন আহসান ঠাকুরগাঁও থেকে শিশুটি উদ্ধার করেন। এ সময় শিশুর বাবা ইসমাইল হোসেন ও মা বৃষ্টি সঙ্গে ছিলেন। চুরি যাওয়া শিশুটির বাড়ি নওগাঁ সদর উপজেলার মঙ্গলপুর গ্রামে।

এ বিষয়ে তদন্ত কর্মকর্তা ফায়সাল বিন আহসান জানান, মামলার তদন্তের স্বার্থে এখন কোনো তথ্য জানানো যাবে না। পরে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৫ অক্টোবর নওগাঁ সদর হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ড থেকে শিশু মুসা চুরি হয়।

এর আগে ২ অক্টোবর ডায়রিয়াজনিত সমস্যার কারণে হাসপাতালের নতুন ভবনের শিশু ওয়ার্ডে শিশু মুসাকে ভর্তি করানো হয়।

এ সময় তার মা বৃষ্টি ও দাদি সঙ্গে থাকতেন। শিশু কিছুটা সুস্থ হয়ে ওঠায় তার মা তাকে নিয়ে ওয়ার্ডের বাহিরে এসে পাঁয়চারি করছিলেন।

তার পাশে এক অপরিচিত নারীও ঘোরাঘুরি করছিলেন। ওই নারীর হাতে শিশু মুসাকে দিয়ে ওয়ার্ডের ভেতরে বাচ্চার প্যান্ট নিতে যান।

ওই নারী একসময় কৌশলে বাচ্চাকে কোলে নিয়ে বাহিরে চলে যান। এতে শিশু ওয়ার্ডে কান্না ও হইচই শুরু হয়।

পরে হাসপাতালের সিসি টিভির ভিডিও ফুটেজ থেকে বোরকা পরিহিত এক নারীকে ওই শিশুটিকে কোলে নিয়ে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যেতে দেখা যায়।

এ বিষয়ে শিশু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে। এর পর শিশুটি উদ্ধারে মাঠে নামে পুলিশ।


  • 13
    Shares
শর্টলিংকঃ