পশ্চিমবঙ্গে নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ চলছে

  • 9
    Shares

নাগরিকত্ব (সংশোধনী) আইনের বিরুদ্ধে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে টানা তৃতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ চলছে। রোববার রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভকারীরা আগুন জ্বালিয়ে জাতীয় সড়ক ও রেলপথ অবরোধ করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এবার ইন্টারনেট পরিষেবা নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যসরকার। খবর আনন্দবাজার।

রাজ্য সচিবালয় সূত্র জানিয়েছে, পরিস্থিতি রোববারও নিয়ন্ত্রণে না আসায় ইন্টারনেট নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, মালদহ, মুর্শিদাবাদের বেশ কিছু এলাকায় এবং দক্ষিণ ২৪ পরগণার ক্যানিং ও বারুইপুরের কিছু অংশ এবং বসিরহাট ও বারাসত মহকুমারও কিছু জায়গায় ইন্টারনেট নিয়ন্ত্রণের নির্দেশিকা জারি করা হচ্ছে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে সেই নিয়ন্ত্রণের পরিধি আরও বাড়ানো হতে পারে। হাওড়া ও উত্তর দিনাজপুরেও এই নিয়ন্ত্রণ কার্যকর করা হবে।

সকাল থেকে রাজ্যের নতুন নতুন জায়গায় আন্দোলন ছড়িয়ে পড়তে এবং সেই আন্দোলনকে কেন্দ্র করে সহিংসতা ছড়াতে দেখা গেছে। মালদহ জেলার বিভিন্ন অংশে রেলপথ এবং জাতীয় সড়ক অবরোধের খবর এসেছে। একই রকম ভাবে বীরভূম জেলার মুরারইয়ের দুটি ব্লকেই বিক্ষোভ বাড়ছে। বিক্ষোভ চলছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার মল্লিকপুর, বারুইপুর, মহেশতলা, হটুগঞ্জে। সকাল থেকে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ করে রাখা হয়েছে উত্তর ২৪ পরগণায় আমাডাঙার সোনাডাঙা, ধানকল, কামদেবপুরে।

মালদহের ভালুকা এবং কুমেদপুর স্টেশনে একটি বিশাল জমায়েত ট্রেন লাইন অবরোধ করে রয়েছে। ফলে উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ের একের পর এক ট্রেন আটকে পড়েছে বিভিন্ন স্টেশনে। বাতিল করা হচ্ছে বহু ট্রেন।

বুধবার রাতে ভারতের রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল পাস হয়। এর প্রতিবাদে ওই দিনই আসাম বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে। বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে মেঘালয় ও পশ্চিবঙ্গে। শনিবার পশ্চিমবঙ্গে দফায় দফায় বিক্ষোভ, রেল-সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভকারীরা।


  • 9
    Shares
শর্টলিংকঃ