হাসপাতালের ডাস্টবিনে ‘অপরিণত’ ৩১ নবজাতকের লাশ

  • 4
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডাস্টবিন ও ড্রেন থেকে ‘অপরিণত’ ৩১ নবজাতকের মরদেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার রাত ৯টার দিকে হাসপাতালের পানির ট্যাংক সংলগ্ন ডাস্টবিন থেকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত এসব নবজাতকের অধিকাংশ অপরিণত।

শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

মেডিকেল কলেজটির ওয়ার্ড মাস্টার আবুল মোদাচ্ছের আলী জানান, রাতে হাসপাতালের পশ্চিম পাশে কেন্দ্রীয় পানির ট্যাংক সংলগ্ন ডাস্টবিনের ময়লা অপসারণ করছিলেন পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা। এ সময় ময়লার ভেতরে বালতি ভরা অপরিণত শিশুর মরদেহগুলো দেখতে পান তারা। ওখানে ৩১ টি অপরিণত শিশুর মরদেহ রয়েছে। তবে পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের দাবি মৃতদেহের সংখ্যা ৩৫টি। এর বেশিও হতে পারে।

মোদাচ্ছের আলী বলেন, অনেক মায়ের অপরিণত বাচ্চা জন্মায়। যা অনেক সময় পরিবারের লোকেরা নিয়ে যায়। আবার অনেকে ফেলে যায়। রেখে যাওয়া বাচ্চাগুলো দিয়ে মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের ক্লিনিক্যাল ক্লাস নেওয়া হয়। পরে তা কলেজ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নির্দেশে মাটি চাপা দেওয়া হয়। কিন্তু বাচ্চাগুলোর মরদেহ মাটি চাপা না দিয়ে ডাস্টবিনে ফেলে দেওয়া হলো কেন সে বিষয়টি বোধগম্য নয়।

বালতি থেকে উদ্ধারকৃত অপরিণত নবজাতকের লাশ

শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক এসএম বাকির হোসেন দাবি করেন, বিভিন্ন সময় এসব অপরিণত শিশুর মরদেহ সংরক্ষণ করা হয়েছে। এসব মরদেহ ডাস্টবিনে না ফেলে মাটি চাপা দেওয়ার কথা ছিল। ভুলক্রমে হয়তো ডাস্টবিনে ফেলা হয়েছে। মরদেহগুলো মাটি চাপা দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

কোতোয়ালি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তাদের মরদেহগুলো উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন বলে জানান ওসি।

Print Friendly, PDF & Email

  • 4
    Shares
শর্টলিংকঃ